নদীর ধারে ঘুরতে গিয়ে হটাৎ দেখা গেলো একটি বিশাল বড়ো অক্টোপাস, ধরতে গিয়ে ঘটলো বিপত্তি, ভাইরাল ভিডিও

0

বর্তমান সময়ে বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তির উন্নতির সাহায্যে বহু কিছুই জটিল জিনিস আমাদের হাতের মধ্যে খুব সহজেই ধরা দিয়েছে, তা আমরা অস্বীকার করতে পারবনা। বিজ্ঞানের উন্নতির সাথে সাথে আমরা নিজেদের মনোরঞ্জনের বিষয়গুলোকে এখন হাতের মুঠোয় আনতে পেরেছি।

বিজ্ঞানের সাথে সাথে উন্নত হয়েছে প্রযুক্তির। এখন আমরা মনোরঞ্জনের জন্য টেলিভিশনও হাতের মুঠোয় আনতে পেরেছি। স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে আমরা এখন যেখানে সেখানে টেলিভিশন উপভোগ করার সুবিধা পেয়েছি।

যত সময় যাচ্ছে ততই যেনো আমরা বিজ্ঞানের উন্নতির সাথে সাথে প্রযুক্তিগুলিও হাতের মুঠোর মুষ্ঠিবদ্ধ করতে পেরেছি। এই বিজ্ঞানের অগ্রগতির ফল স্বরূপ এখন আমরা সোশ্যাল মিডিয়া থেকেই আমাদের মনোরঞ্জনকে মুষ্ঠিবদ্ধ করতে সফল হয়েছি।

এখন আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই খেলা, গানবাজনা, খবরাখবর নিজের হাতের মধ্যেই উপভোগ করতে পারি। সোশ্যাল মিডিয়া হলো বিজ্ঞানের অবদানগুলির মধ্যে অন্যতম শ্রেষ্ঠ অবদান। যার মাধ্যমে আপনার থেকে দূরে কোনো মানুষের সাথে নিমিষে বার্তা লাভ করা যায়।

এই সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে বহু থেমে যাওয়া প্রতিভার নতুন করে আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে বহু খবরাখবর হাতের মুঠোয় যেকোনো স্থানে তৎক্ষণাৎ জেনে নিতে পারি। সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে ব্যবসা বাণিজ্যের বিভিন্ন তথ্য আদানপ্রদান নিমিষেই সম্পন্ন করতে পারি।

সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে আমরা ঘরে বসেই বিভিন্ন বিষয়ক শিক্ষা নিমিষেই গ্রহণ করতে পারি। সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে প্রাকৃতিক বিভিন্ন অবস্থা সমন্ধে জানতে পারি এবং দুর্যোগের পূর্ববর্তী সতর্কতা গ্রহণ করতে পারি।

সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনি আপনার প্রতিভার আত্মপ্রকাশ ঘটিয়ে রাতারাতি স্টার হয়ে যেতে পারেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু মানুষ তার প্রতিভার ভিডিও আপলোড করেন এবং জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন নেটিজেনদের মাঝে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে খুব কম সময়ে একটি মানুষ তার অসামান্য প্রতিভা সকল মানুষজনের কাছে তুলে ধরতে পারেন।

সম্পূর্ণ বলতে গেলে এটি বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তির এক সম্পূর্ণ সুবিধাপূর্ন মাধ্যমগুলোর প্যাকেজ। বহু মানুষের বিভিন্ন মুহূর্তের ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায় এই সোশ্যাল মিডিয়ায়। ইদানিং এক মহিলার বন্য জীবন যাপনের ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে এই সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে এক মহিলা একটি ঘন জঙ্গলের মধ্যে থেকে বাঁচার তাগিদে গাছ থেকে ফল সংগ্রহ করে খেলেন। অতঃপর দেখা যাচ্ছে ওই মহিলা ওই জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে বয়ে যাওয়া একটি নদীর মধ্যে থেকে জটিল কৌশলে অক্টোপাস শিকার করলেন।

অতঃপর ভিডিওটিতে দৃশ্যমান ওই অক্টোপাস গুলিকে কাঠের আগুনে পুড়িয়ে ওই মহিলা আহার করছেন। এই সম্পূর্ণ মুহূর্তটি ওই মহিলা ক্যামেরাবন্দী করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন। এই ভিডিওটি নিমিষে ভাইরাল হয় এই সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সোশ্যাল মিডিয়ার দর্শকদের এই ভিডিওটি খুবই ভালো লেগেছে তা সোশ্যাল মিডিয়ার দর্শকরা কমেন্ট করে জানিয়েছেন। ঘন জঙ্গলের মধ্যে কিভাবে আদিম পদ্ধতিতে সার্ভাইভ করতে হয় সেটিই এই ভিডিওটির মাধ্যমে আমাদের কাছে তুলে ধরা হয়েছে।

এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু ভাইরাল ভিডিওর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। আপনিও এই ভিডিওটি দেখতে পারেন এবং উপভোগ করতে পারেন। এই ভিডিওটি Village Cooking ইউটিউব চ্যানেলে দুই বছর আগে আপলোড করা হয়েছে।

এই ভিডিওটিকে বহু মানুষজন দেখেছেন এবং উপভোগ করেছেন। এই ভিডিওটিকে বহু মানুষজন লাইক করেছেন এবং বহু মানুষজন কমেন্ট করে তাদের মতামত জানিয়েছেন। এই ভিডিওটিকে বহু মানুষজন শেয়ার করে অন্যদের এই ভিডিওটি দেখার সুযোগ করে দিয়েছেন।