অবাক কান্ড! অবশেষে পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম গরু রানী বিক্রি হলো কত লাখ টাকায় জানেন, ভিডিও ভাইরাল

0

সোশ্যাল মিডিয়ায় কাজ এখন বহু অদ্ভুত অদ্ভুত ঘটনা ভাইরাল হয়। কেউ যদি নিজের কোনো ভালোলাগার মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দী করে স্যোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করে তবেই সেটা মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়।

তাই বর্তমানে স্যোশাল মিডিয়া হয়ে উঠেছে বিশ্বের দরবারে নিজেকে প্রকাশ করার একটি অনন্য মাধ্যম। তবে শুধু মানুষই নয়, এখানে নানান রকম পশু পাখিদেরও বেশ মজার মজার ভিডিও দেখতে পাওয়া যায়।

বাড়ির পোষ্যদের নানা কান্ড কারখানা ভাগ করে নেন সবার সাথে। আর এখন নিজের প্রতিভা প্রদর্শন করার সবচেয়ে বড় প্লাটফর্ম হল সোশ্যাল মিডিয়া।

আর এই ভাইরাল হওয়ার দৌড়ে পশুপাখিরাও বা বাদ যাবে কেন? সম্প্রতি তেমনি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা দেখে রীতিমতো তাজ্জব বনে গেছে নেটিজেনরা।

তেমনই একটি অবাক করা ঘটনা ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। সাধারণত ওজনে সব থেকে বড় হওয়ার জন্য বেশ কিছু গরু বিখ্যাত হয়ে যায়।

কিন্তু এইবার ঘটনাটা ঘটলো পুরো উল্টো।সবচেয়ে বড় হওয়ার জন্য নয় বরং সবথেকে খুদে হওয়ার জন্য বিখ্যাত হয়ে উঠল একটি গরু ।গরুটির নাম ‘রাণী’।

উচ্চতা মাত্র ২০ ইঞ্চি। লম্বায় ২৭ ইঞ্চি। এই খর্বাকৃতির গরুটির ওজন মাত্র ২৬ কেজি। বয়স প্রায় দুই বছর। দেখতে একটি বন বিড়ালের মতো। কোরবানি দেওয়ার উপযুক্ত।

দাম উঠেছে সাড়ে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত। সাভারের আশুলিয়ার চারিগ্রামের এই ‘রাণী’ হলো পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট গরু।

বক্সার ভূট্টি জাতের এই খর্বাকৃতির গরুটিকে বিশ্ব রেকর্ডে জায়গা করে দিতে ইতোমধ্যে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছে এটির মালিক সাভারের ‘শিকড় এগ্রো লিমিটেড’।

শিকড় এগ্রোর মালিক কাজী আবু সুফিয়ান বলেন, দুই বছর আগে নওগাঁর এক খামারির থেকে গরুটি ক্রয় করি। রাণীকে দিনে দুই বেলা খাবার দিতে হয়।

সাধারণ গরুর তুলনায় এটির খাবার অনেকটা কম প্রয়োজন হয়।পরীক্ষা নিরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে বিশ্বে ছোট গরুর রেকর্ডে ভারতকে পেছনে ফেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

এমনকি, সবচেয়ে ছোট গরু হিসেবে গিনেস বুকে নাম উঠতে পারে ‘রাণীর’ গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী-এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরুটি রয়েছে ভারতের কেরালা রাজ্যে।

৪ বছর বয়সী ওই গরুটি লাল রঙের। যেটির উচ্চতা ২৪ ইঞ্চি (২ ফুট)। আর ওজন ৪০ কেজি। গরুটির নাম নাম ‘মানিকিয়াম’। ভারতের গরুটি ল্যাব্রাডার কুকুরের চেয়েও ছোট।

দক্ষিণ ভারতের রাজ্য কেরালার আথোলিতে বাস মানিকিয়ামের। এর মালিক অক্ষয় এনভি নামের এক ব্যক্তি। এদিকে সাভারের আশুলিয়ার চারিগ্রামে পাওয়া গরু ‘রাণী’ ভারতের,

‘মানিকিয়াম’ এর চেয়েও কম ওজন ও উচ্চতার। স্থানীয় এক পশু চিকিৎসক বলেন, ছোট্ট এই গরুটি পুরোপুরি সুস্থ রয়েছে। এর উচ্চতা এবং ওজন আর বাড়ার সম্ভাবনা নেই।

খামারে আরও চারটি ছোট গরু থাকলেও তা এতো ছোট নয়। রাণীই সবচেয়ে ছোট। ছোট এ গরুটির বিক্রয় মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ টাকা। তাহলে বুঝতেই পারছেন রানীর দাম একেবারে রানীর মত রাজকীয়।