খিদের জ্বালা মেটাতে একটি আস্ত গরুর স্তন্য পান করছে খুদে কুকুর ছানা, ঝড়ের গতিতে ভিডিও ভাইরাল

0

পৃথিবীতে প্রতিনিয়তই নানান আশ্চর্য ঘটনা ঘটে চলেছে। বর্তমান যুগে বিজ্ঞান এখন অগ্রগতির শিখরে। এই অগ্রগতির যুগে একমাত্র বিজ্ঞানই ছুঁয়েছে সাফল্যের শিখর।

মানুষ তার বুদ্ধিমত্তা দিয়ে সব জটিল মাধ্যমগুলোকেই হাতের মুঠোয় আনতে সফল হয়েছে। মানুষ এখন জটিল থেকে জটিলতর কাজ করে ফেলতে পারে এক মুহুর্তের মধ্যে।

তবে আরেকটি বিষয়ও যেটা ভীষণভাবে মানুষের কাছে পরিচিত সেটা হল সোশ্যাল মিডিয়া। বর্তমান যুগে এসে খবরাখবর,

খেলাধুলা, গানবাজনা ও মনোরঞ্জন মানুষের হাতের মুঠোয় এসেছে এর মাধ্যমে ।আর সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে নিমেষেই মধ্যেই সেই ঘটনাগুলি ধরা পড়ে আমাদের চোখের সামনে।

সোশ্যাল মিডিয়া না থাকলে এত দ্রুত আমরা এত খবর পেতাম না। আর তাই মানুষের জীবনে সোশ্যাল মিডিয়ার অবদানকে কোনোভাবেই অস্বীকার করা যায় না।

সেই ভিডিও গুলির মধ্যে যেমন মানুষের ভিডিও থাকে তেমন থাকে পশু পাখির ভিডিও যেটা কিনা আপনাকে একেবারে অবাক করে দেবে।

সম্প্রতি এমন একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, চারটি ছোট্ট কুকুর ছানাটাকে পরম স্নেহে কোলে টেনে নিয়েছে এক গরু।

আপাতত গরুর বাঁটে মুখ দিয়ে কুকুরছানা গুলি দুগ্ধ পান করছে। কুকুর গুলো বড্ড ছোট। সদ্য তাদের চোখ ফুটেছে তাই তাদের মায়ের মতন কাউকে খুবই প্রয়োজন ছিল।

এই কুকুরছানাদের জন্ম দেওয়ার পরে মৃত্যু হয়েছে মায়ের। আপাতত শিশুগুলো আজ অনাথ। কিন্তু সেই শিশুগুলোকে বেড়ে ওঠার জন্য,

প্রয়োজন মায়ের দুধের মায়ের দুধের মধ্যে যে পরিমাণ পুষ্টি গুণ থাকে তা বাইরে থেকে দেওয়া খুবই দুষ্কর ব্যাপার।

আর এই সময় যদি দুধের পরিমাণ একটু বেশি হয়ে যায় তাহলে কুকুর ছানা গুলি মারা যেতে পারে তবে তাদের মায়ের অভাব হয়নি।

এই বয়সে বাইরে দুধ খাওয়ালে অনেক সময় তাদের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে। পরম স্নেহে মায়ের গরু একেবারে মার মতন তাদেরকে দুগ্ধ পান করাচ্ছে।

কুকুরছানা গুলিও যেন গরু মায়ের কাছে এসে বেশ পরম আনন্দে রয়েছে। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওয়ার সাথে সাথেই রীতিমতন ভাইরাল হয়েছে।

গোমাতার এমন কুকুরছানাগুলিকে দুগ্ধ পান করাতে দেখে প্রত্যেকেই অবাক হয়েছেন।নিঃস্বার্থ ভালোবাসার এক অনন্য নিদর্শন এই ভিডিওটি।

সবাই একেবারে মুগ্ধ হয়ে এই ভিডিওটি দেখেছে আর ভিডিওটির সকলেই প্রশংসা করেছেন।এই ভিডিওটি ষাট লাখেরও বেশি,

মানুষজন দেখেছেন এবং উপভোগ করেছেন। এই ভিডিওটি কুড়ি হাজারেরও বেশি মানুষজন লাইক করেছেন। মন ভাল করা ভিডিও।