ভোট প্রচারে গিয়ে মুখোমুখি বাম প্রার্থী সেলিমের, গাড়ি থামিয়ে প্রণাম করে সৌজন্যতা দেখেন যশ দাশগুপ্ত

0

বিধা’নসভা ভোটকে কে’ন্দ্র করে এখন নবীন এবং প্র’বীনদের মধ্যে একটি যু’দ্ধ বেধে গেছে। এই যু’দ্ধের ফলাফল ঘোষণা হবে আগামী ২রা মে,

তার আগে স’মস্ত রা’জনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরা তাদের প্র’চার করতে ব্য’স্ত। স’মাপ্ত হয়েছে প্র’থম দফায় ভোট।

এরপর আস্তে আস্তে বাকি সাত দফার ভোট ও স’মাপ্ত হবে এবং তারপরেই সেই গু’রুত্বপূর্ণ দিন যেদিন সামনে আসবে ভো’টের রায়।

অ’পেক্ষা কার মাথায় জ’য়ের মু’কুট উঠবে। ভো’টের প্র’চারে যেন প্র’ত্যেক রাজ’নৈতিক দলের নেতা-নেত্রীদের মনেই মুখেই শোনা যায় নানান কথা,

কখনো শোনা যায় স’ম্মানীয় কথা, আবার কোন সময় সেটা অ’তিরিক্ত অ’সম্মান দায়ক। রা’জনীতি এমন একটা জা’য়গা যেখানে হয়তো ব’য়স্ক থেকে অ’ল্পবয়স্ক কারোরই স’ম্মান সেরকম থাকেনা।

যা পারে তাই হয়তো বলে। রা’জনীতিতে প্র’বেশ করা মানে বাইরে থেকে অনেক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করতে হয় অনেকের।

রাজনৈ’তিক মানে যেখানে থাকে রে’ষারেষি, কে কাকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাবে তার চি’ন্তা,মি’থ্যা এবং হাজারো সেই স’মস্ত প্র’তিশ্রুতি যেগুলো কোনদিনই বা’স্তবায়িত হবে না।

একদল যে অ’ন্য দলকে স’ম্মান করবে সেটা হয়তো স্ব’প্ন যা কোনোদিনই বা’স্তবে রূপ নিতে পারবে না।

এবারের একটি ঘটনা যা দেখে হয়ত কোথাও আশা জাগে যে হয়তো বা রাজনৈতিক জগতে পা দিলেও কারোর কারোর মনে স’ম্মান অ’বশ্যই থাকে অন্য দলের মানুষের জন্য।

মহা’ম্মদ সেলিম যিনি বহু পুরানো একজন দ’ক্ষ রাজ’নীতিবিদ, যিনি দুইবার রা’জ্যসভার সাংসদ হিসেবে নি’র্বাচিত হয়েছিলেন।

মহা’ম্মদ সেলিম সিপিএম এর একজন গু’রুত্বপূর্ণ নেতা যার নজরে থাকে তৃ’ণমূল এবং বিজিপির দুজনাই।

সেলিম চ’ন্ডীতলা কে’ন্দ্রের প্রা’র্থী হিসেবে নি’র্বাচিত হয়েছেন আর অ’ন্যদিকে বিজেপির হয়ে নির্বাচিত হয়েছেন অ’ভিনয় জগতের তারকা যশ দা’শগুপ্ত।

বোঝা যাচ্ছে যে চন্ডীতলা নবীন এবং প্রবীণ এর মধ্যে একটি যুদ্ধ হতে চলেছে। শনিবার দিন চ’ন্ডীতলা বেরিয়েছিলেন সেলিম এবং সেখানেই দেখা হয়ে যায় যশ দাশগু’প্তের সাথে।

দুইজনাই দুটি আলাদা আলাদা দলের যারা একে অপরের দলকে কথা বলতেও ছাড়ে না।এইখানটায় হলো কিছু আলাদা যশ,

এবং সেলিমের দেখা হওয়ার ফলে কোন রকম মন্ত’ব্য ওঠেনি। যশ সেলিমের প্র’তি দেখালো অগা’ধ ভালোবাসা এবং স’ম্মান।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Yash Fan Club (@yashfanclubofc)

একজন প্র’বীণ রাজনীতিবিদ হিসেবে সেলিম কে প্র’ণাম করলেন যশ। এইরকম একটি ঘটনায় সত্যিই আ’নন্দ পেয়েছেন মোহা’ম্মদ সেলিম। তিনি মন ভরে দুই হাত তুলে আ’শীর্বাদ করেছেন যশকে।