লাল, নীল, সবুজ শাড়ি পরেই দুর্দান্ত নেচে নেটদুনিয়ায় ভাইরাল এই ৪ যুবতী, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

0

স্টাফ রিপোর্টার সুদীপ্তা দত্ত: বর্তমানে এই আধুনিকতার শিখরে এসে মানুষের সব বিনোদনের বিষয়গুলি মানুষ, নিমিষে উপভোগ করতে পারে যেমন – খবরাখবর উপভোগ করা, খেলাধুলা উপভোগ করা, চলচ্চিত্র উপভোগ করা, গানবাজনা উপভোগ করা। আগে আমরা এই সব বিষয়গুলি একটি নির্দিষ্ট স্থানে দূরদর্শনের মাধ্যমে উপভোগ করতে পারতাম।

কিন্তু এখন বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তি, এতটাই সাফল্যের শিখর ছুঁয়েছে যে আমরা এই সব বিষয়গুলি যেকোনো স্থানে যেকোনো সময় যেকোনো মুহূর্তে হাতের মুঠোয় উপভোগ করতে পারি। এখন সবার হাতে হাতে স্মার্ট ফোন দেখতে পাওয়া যায়। এই স্মার্ট ফোনে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা মানুষের মনোরঞ্জনের,

বিষয় গুলি যেমন – খেলাধুলা, গান বাজনা, খবরাখবর সব কিছুই হাতের মুঠোয় নিমিষে উপভোগ করতে পারি। সোশ্যাল মিডিয়া হল বিজ্ঞানের এমন একটি চমৎকারী অবদান যেখান থেকে ঘরে বসেই নতুন বন্ধু বানানো যায়, নতুন মানুষের সাথে মেশা যায়। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এক স্থানে উপস্থিত মানুষ নিজের থেকে দূরের কোনো স্থানে উপস্থিত কোনো মানুষের সাথে নিমিষে বার্তালাভ করতে পারে।

এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মানুষ এখন ঘরে বসেই শিক্ষা অর্জন করতে পারে। এই সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু শিক্ষক, এবং শিক্ষিকা বিভিন্ন বিষয়ক ভিডিও বানান এবং সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন। এই সব শিক্ষামূলক ভিডিও দেখে বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন বিষয়ক শিক্ষা অর্জন করেন। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বহু মানুষজন তাদের ব্যবসা ডিজিটাল করছেন। বহু মানুষজন এই সোশ্যাল মিডিয়ার,

মাধ্যমে বিভিন্ন মানুষের উপার্জনের পথ খুঁজে দিয়েছেন। বহু মানুষজন তাদের ব্যবসা বৃদ্ধি করতে এই সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্য নিয়েছেন। সাম্প্রতিককালে সোশ্যাল মিডিয়া এমন একটি প্লাটফর্ম যেখানে কোন কিছু ভাইরাল হতে খুবই কম সময় লাগে। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে হাজার হাজার মানুষের কাছে পৌঁছে যায় এই মিডিয়ার দরুন। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনেক মানুষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন, নিজেদের নাম করতে পেরেছে বিশ্বের দরবারে।

তারথেকেও বড় কথা হলো সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিভাদের যেকোনো জায়গা থেকে তুলে নিয়ে আসতে সক্ষম। আমাদের ভারতবর্ষ দেশে নাচ গান অঙ্কন এসব বিষয়গুলিকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়। ভারতবর্ষে ভারতনাট্যম করথক নৃত্য শৈলী খুবই জনপ্রিয়, কিন্তু সেরকম ভাবে বেলি ডান্স এইমাত্র শৈলী এতটা জনপ্রিয় নয় আমাদের দেশে। এই নৃত্য শৈলী কোথাও-না-কোথাও প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্যই বোঝায়। আমাদের দেশের ক্লাসিক্যাল নৃত্য শৈলী কে,

বেশি গুরুত্ব দেওয়া হতো কিন্তু এখন যত দিন যাচ্ছে ততই প্রাপ্তবয়স্ক থেকে শুরু করে বাচ্চারা বলে নাচ করতে বেশী আগ্রহী। সম্প্রতি সেরকমই একটি ভিডিও শেয়ার হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় যেখানে দেখা গিয়েছে চারজন যুবতী নাচ তেরি ওর গানে অসাধারণ স্টেপে নাচ করেছে। গানের সাথে মানানসই চারজন যুবতী শাড়ি পড়েছেন। তাদের বয়স সম্ভবত ২৪ থেকে ২৫ বছর। এই বিষয়টি তাদের নাচকে আরো সুন্দর করে তুলেছে।

তারপরেই তারা গানের সাথে তালে তাল মিলিয়ে নাচ করতে শুরু করে। ভিডিওটি দেখে স্পষ্ট যে তিনজনের মধ্যে খুব ভালো তাল মিল ছিল। চারজন এই একই সাথে একই নাচের স্টেপ নাচ করছিল। তারা বাড়ির ছাদে আনন্দের সাথে নাচ করছিলে চারজন যুবতী। চারজন যুবতী এমন পরিবেশে নাচ করেছেন যা দেখে মনে হচ্ছে কিছুক্ষণ আগে বৃষ্টি হয়েছে অপূর্ব পরিবেশে এই বিষয়টি নাচটিকে আরো সুন্দর করে তুলেছে।

এই ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে এই চারজন যুবক দের মধ্যে একজন যুবতী যার নাম সাচিনী নামক ইউটিউব পেজ থেকে। এই সোশ্যাল হ্যান্ডেল থেকে এই চারজন যুবতী অনেক নাচের ভিডিও শেয়ার করে থাকেন। এছাড়াও আরো অনেক নাচের ভিডিও শেয়ার হয়েছে এই ইউটিউব পেজ থেকে। এখনো পর্যন্ত এই ভিডিওটি প্রায় কয়েক মিলিয়নের বেশি মানুষ দেখে ফেলেছে। লাইকের সংখ্যা প্রায় কয়েক হাজারের কাছাকাছি।

কমেন্ট সেকশনে নেটিজেনরা প্রশংসা ঝড় তুলে দিয়েছে চারজন যুবতীর নাচের প্রশংসায়। অন্যদিকে অনেকে কমেন্ট সেকশনে লিখেছেন, তাদের যেমন দেখতে সুন্দর লাগছে তেমনি তাদের নাচ অনবদ্য। আবার অনেকে লিখেছেন যে তারা তাদের এই নাচের, গ্রুপের অনেক বড় ফ্যান। তবে কমেন্ট সেকশনে অনেকেই তাদের আনন্দের সাথে নাচ করার বিষয়টি যথেষ্ট পছন্দ করেছেন।