“খড়কুটো” সিরিয়াল নিয়ে এবার সমালোচনা তুঙ্গে, তৃনার অতিরিক্ত ন্যাকামি ও একঘেয়ে অভিনয় নিয়ে কটাক্ষ করলেন নেটিজেনরা

0

বাংলা টেলিভিশনে টিআরপি তালিকায় বরাবরের মত “খড়কুটো” শীর্ষেই থেকেছে। অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিকের মধ্যে একটি হল “খড়কুটো”।

মূল ভূ’মিকায় রয়েছেন তৃণা সাহা এবং কৌশিক রায়। গুনগুন ও সৌজন্যের খুনসুটি মনে ধরেছিলো দর্শকের।

তবে সেখানেই রয়ে যাচ্ছে গলদ। একাধিক দর্শকদের কথায়, তৃণা সাহার অভিনয় অত্যন্ত খারাপ।

তাঁর অভিনয় দেখলে নাকি গুনগুনের চরিত্রটিকে মানসিক অসুস্থ বলে মনে হয়। গুণগুণ এই ধারাবাহিকে নানারকম কান্ডকারখানার মাধ্যমে দর্শকদের মাতিয়ে রাখেন।

কখনও টেবিল গিফট পেয়ে জড়িয়ে ধরে সৌজন্যকে আবার কখনও ভূতের ভয়ে সৌজন্যকে জড়িয়ে ধরে।

তবে এসব কিছুই এখন আর মনে ধরছে না গুণগুণপ্রেমীদের। তাদের অনেকের কাছেই এই ধারাবাহিক এখন একঘেয়ে লাগতে শুরু করেছে।

একজন বলেছেন গুণগুণ এক বড় ডাক্তারের মেয়ে ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে পড়াশোনা করে প্রাপ্ত বয়সেই বিয়ে করেছে।

তারপরেও কি সে বোঝে না বিয়ের মানে। লেখক কি দর্শকদের বাচ্চা মনে করেন? সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া একটি প্রোমো জুড়ে সেই নিয়েই চলছে চর্চা।

তৃণার অভিনয় দেখে একজন লিখেছেন, “মেন্টালি আনস্টেবল লাগছে গুনগুন কে। আর সহ্য করা যাচ্ছে না। সবকিছুর একটা সীমা থাকা দরকার”।

কেউ তৃণা সাহা কে বলে দিন যে এটা “কলের ব‌উ” না। আর রাইটার কেও নতুন কিছু লিখতে বলা হোক।” এই একই ধরণের মন্তব্য কেবল একজন নয়,

একে একে অনেকেই করে গিয়েছেন। তবে কি ছোটপর্দার সকলের পছন্দের তৃণার অভিনয় কি কিছু মানুষের একেবারেই পছন্দ হচ্ছে না।

এখানেই শেষ নয় তিনি আরও বলেছেন যে এক বন্ধুর কথায় তিনি “খড়কুটো” ধারাবাহিক দেখতে শুরু করেছিলেন।

প্রথমে ভালো লাগলেও বর্তমানে তার এই ধা’রাবাহিক একঘেয়ে মনে হচ্ছে। তাই জন্যই হয়তো এই ধা’রাবাহিকের টিআরপি কমে যাচ্ছে।

অনেকেই আবার গুণগুণের চরিত্রে তৃণার অভিনয়ে মুগ্ধ হয়েছেন সবাই। অনেকেই মনে করেন তৃণা ছাড়া অন্য কাউকেই এই চরিত্রে মানাত না।