অবিশ্বাস্যকর ঘটনা! আকাশে উড়তে উড়তে হঠাৎ সমুদ্রের জলে ল্যান্ড করলো আস্ত বড়ো প্লেন, ভাইরাল ভিডিও

0

বিপজ্জনক রানওয়েতে বিমান দুর্ঘটনার ঘটনা নতুন নয়। বিশ্বের বহু দেশেই এমন ছোট-বড় অনেক দুর্ঘটনারই নজির রয়েছে। বিশ্বের কিছু কিছু বিমান বন্দর রয়েছে,

যেখানে অবতরণ বা উত্তরণ সবসময়ই অত্যন্তল ভয়ের। দেখে নেওয়া যাক বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক রানওয়েওয়ালা যুক্ত সেরা দশ বিমান বন্দর কোনগুলি।

নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটন এয়ারপোর্ট: নিউজিল্যান্ডের রাজধানী ওয়েলিংটনের বিমানবন্দরের রানওয়েও অত্যন্ত ছোট৷ দৈর্ঘ্য মাত্র ২০৮১ মিটার বা ৬৮২৭ ফুট৷

এখানে শুধুমাত্র ছোট প্লেনগুলিকেই ল্যান্ড করার অনুমতি দেয়া হয়৷ নিউজিল্যান্ডের গিসবোর্ন এয়ারপোর্ট: নিউজিল্যান্ডের এই বিমানবন্দরের রানওয়ের উপর দিয়ে আবার রেলের ট্র্যাকও রয়েছে৷

অর্থাৎ বিমান ওঠা-নামার পাশাপাশি ট্রেনও যায় এখান থেকে৷ জাপানের কানসাই আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট: জাপানের একটি ছোট্ট দ্বীপের মধ্যে তৈরি হয়েছে এই বিমানবন্দর৷

যখন তখন ভূমিকম্প, ঘূর্ণিঝড় বা ঝড় লেগেই থাকে৷ এই বিমানবন্দরে বিমান চলাচল তাই অত্যন্ত বিপজ্জনক।

ফ্রান্সের কাউর্চোভেল এয়ারপোর্ট: ফ্রান্সের এই বিমানবন্দরে রানওয়ের দৈর্ঘ্য মাত্র ৫০০ মিটার। আল্পস পর্বতের উপর স্কি রিসর্টের জন্যই এই জায়গা বিখ্যাত৷

এই বিমানবন্দরও অধিকাংশ সময় স্কি পর্যটকদের জন্যই ব্যবহৃত হয়৷ প্রচণ্ড কুয়াশা এবং বরফের মধ্যে এই রানওয়েতে ল্যান্ড করাটা অত্যন্ত কঠিন কাজ পাইলটদের জন্য৷

সেন্ট রার্থেলেমির গুস্তাফ-৩ এয়ারপোর্ট: এত ছোট রানওয়েতে শুধুমাত্র ২০ জন যাত্রীর প্রাইভেট বিমানই নামতে পারে৷

সেন্ট মার্টেনের প্রিন্স জুলিয়ানা আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট: ছবির মতো সুন্দর এই দ্বীপের রানওয়ের ছবি দেখলেই বোঝা সম্ভব যে কতটা কঠিন এখানে বিমান ল্যান্ড করাটা।

গ্রিনল্যান্ডের নাসারসুক এয়ারপোর্ট: গ্রিনল্যান্ডের বিমানবন্দর৷ রানওয়ে কতটা বিপজ্জনক হতে পারে তা আন্দাজ করাটা হয়তো খুব একাট কঠিন কাজ নয়৷

পাহাড়ের গা বেয়ে অধিকাংশ সময় সাংঘাতিক ঝড় অতিক্রম করে বিমান ওঠানামা করতে হয় পাইলটদের৷

নেপালের তেনজিং হিলারি এয়ারপোর্ট: নেপালের তেনজিং-হিলারি বিমানবন্দর৷ এভারেস্টের অভিযাত্রীরা বেস হিসেবে এই বিমানবন্দরকে ব্যবহার করেন৷ বিশ্বের সবচেয়ে ছোট রানওয়েগুলির মধ্যে,

অন্যতম এটি৷ দৈর্ঘ্য মাত্র ১৫০০ ফুট৷  ডাচ ক্যারিবিয়ান আইসল্যান্ড অফ সাবার জুয়ানচো-ই-ইরাউসকুইন এয়ারপোর্ট: যাত্রীবাহী বিমান ওঠানামার জন্য,

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট এই বিমানবন্দরের রানওয়ে৷ মাত্র ৪০০ মিটার লম্বা রানওয়েতে বিমান ওঠানামা করাটা সাংঘাতিক চ্যালেঞ্জের কাজ পাইলটদের জন্য